নর্থবেঙ্গল ফাউন্ডেশনের মহান একুশ উদযাপন 

0
364

 

নিউইয়র্ক: প্রবাসের ঐতিহ্যবাহী সামাজিক সংগঠন নর্থবেঙ্গল ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে আয়োজনে অমর একুশে ফেব্রæয়ারী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২০১৮ উদযাপিত হয় গত ২০শে ফেব্রæয়ারী জ্যামাইকার তাজমহল পার্টি হলে। বাংলাভাষার প্রতি গভীর শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের জন্য মঙ্গলবার রাতে দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদ দিবস পালনের লক্ষে নির্মাণ করা হয় একটি অস্থায়ী শহীদ মিনার।

 একুশের অনুষ্ঠানটি ৪টি পর্বে সাজানো হয়েছিলো। শুরুতেই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাকিবুজ্জামান খান (তনু) উপস্থিত সবাইকে শুভেচ্ছা অভিনন্দন জানিয়ে প্রথম পর্বে সঞ্চালনার দায়িত্ব দেন মোস্তফা কামাল মিল্টনকে। পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন মোহর খান। এরপর বাংলাদেশ আমেরিকার জাতীয় সঙ্গীত বাজানো হয়। সালাম, রফিক, বরকত, জব্বার সহ সকল ভাষা শহীদ শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধার সহিত স্মরণে মিনিট দাঁড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয়। প্রধান অতিথি জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন স্বাগত বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট কৃষিবিদ যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সভাপতি ডঃ সিদ্দিকুর রহমান। সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি ডাঃ মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ। এই সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেনইঞ্জি. এইচ. এম. শহীদ, শাহ নওরোজ, মোজাফফর হোসেন। উপদেষ্টামন্ডলীর মধ্যে প্রধান উপদেষ্টা নাসির খান পল, বিশিষ্ট কুটনীতিক আব্দুর রাজ্জাক খান, ডাঃ চৌধুরী হাসান, বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা মফিজ আহমেদ, নূরুজ্জামান মন্ডল (ফনসু), হুসনে আরা বেগম, জহুরুল ইসলাম টুকু, দবিরুল ইসলাম, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের শাহানারা রহমান। এছাড়াও সংগঠনের সাবেক সভাপতি হাসানুজ্জামান, শাহানা বেগম রিনা, মিসেস পল খান, মিসেস লতিফ, ফ্রেন্ডস সোসাইটির প্রধান উপদেষ্টা এবিএম ওসমান গনী। এই পর্বের পরিচালনায় ছিলেন মোঃ রাকিবুজ্জামান খান। অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে ছিলোসুর ছন্দে একুশ। কবিতা আবৃত্তি একুশের আলোচনা এবং শহীদ কন্ঠযোদ্ধাদের উপর স্মৃতিচারণ। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন মোহর খান। চারটি দেশাত্ত¡বোধক গান ছাড়াও এককভাবে গান পরিবেশন করেন রোকসানা মির্জা, রানু নেওয়াজ, চন্দ্রা রায়, আব্দুস শহিদ, লেমন চৌধুরী, শাহনাজ বেগম, সেলিম ইব্রাহিম, রুবিনা শিল্পী, মোহর খান, আফরোজা বেগম, জোহা চৌধুরী সহ প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পীবৃন্দ। কবিতা আবৃত্তি করেনকামনা হাসান, শাহানাজ বেগম জাহাঙ্গীরনগর ইউনিভার্সিটির সাবেক সভাপতি মোঃ কবির কিরন। রাত ১০টায় একুশ শীর্ষক আলোচক হিসাবে ছিলেনডঃ রুহুল কুদ্দুস অধ্যাপিকা হুসনে আরা। এরপর শহীদ কন্ঠযোদ্ধাদের উপর স্মৃতিচারণ করেন বিশিষ্ট কুটনীতিক আব্দুর রাজ্জাক খান। সঞ্চালনায় ছিলেনকামনা হাসান।

তৃতীয় পর্বে ছিলো অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন সংগঠনের প্রধানদের শুভেচ্ছা বক্তব্য। পরিচালনায় ছিলেন সহসাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ আকন্দ। বক্তব্য রাখেন বৃহত্তর রাজশাহী সমিতি সভাপতি মোতাহার হোসেন সাধারণ সম্পাদক মোজাফফর হোসেন, রংপুর এসোসিয়েশনের সভাপতি ডাঃ নাফিসুল ইসলাম পিপুল, দিনাজপুর জেলা সমিতি সাধারণ সম্পাদক জাভেদ চৌধুরী ভূট্ট, রাজশাহী জেলা সমিতি সভাপতি মোখলেস খন্দকার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ এসোসিয়েশনের সভাপতি মনিরুল ইসলাম বাচ্চু, ঠাঁকুরগাও ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল আলম, উল্লাপাড়া সোসাইটি মোঃ শফিউল আলম, লালমনিরহাট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব হোসেন, নওগাঁ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান, নর্থবেঙ্গল ফাউন্ডেশনের রাজশাহী ডিস্ট্রিক্ট কোঅর্ডিনেটর মঞ্জুরুল আলম রবিন, নওগাঁ ডিস্টিক্ট কোঅর্ডিনেটর রাজিব চৌধুরী এবং পাবনা ডিস্ট্রিক্ট কোঅর্ডিনেটর ইসমাইল হোসেন স্বপন, গোবিন্দগঞ্জ ফাউন্ডেশনের সভাপতি শাহ এম নওরোজ, বৃহত্তর রাজশাহী সমিতি সাবেক সভাপতি মনিরুল ইসলাম সহসভাপতি মুজিবউদ্দিন ঝেন্টু, রংপুর এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি রাজু আহমেদ সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন জিন্নাহ। আরো বক্তব্য রাখেন বিভিন্ন সংগঠনের সামসুল ইসলাম, মোঃ সাখাওয়াত আনোয়ার, মোঃ রইসউদ্দীন, মোঃ মাহবুব।

অনুষ্ঠানটি স্পন্সর করেনএনওয়াই ইন্সুরেন্স এনওয়াই কার এন্ড লিমো সার্ভিসেস ইন্ক, উৎসব ডট কম, ডাঃ বর্ণালী হাসান, বিডি কন্সট্রাকশন এন্ড বিল্ডার্স ইন্ক।

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা অমর একুশের এই অনুষ্ঠানে কম্যুনিটির নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেনডাঃ চৌধুরী সারোয়ারুল হাসান, বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সহসভাপতি ওসমান চৌধুরী, মনোয়ারুল ইসলাম, ইঞ্জি. এবিএম মিজানুল হাসান, ইঞ্জি. আব্দুল মতিন, অধ্যাপক আজিজুল হক (মুন্না), ডাঃ বর্ণালী হাসান।

রাত ১১:৩০ মিনিটে শিশুকিশোরীদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরন করেন সভাপতি ডাঃ আব্দুল লতিফ, সহসভাপতি এইচ. এম. শহিদ সহসভাপতি শাহ নওরোজ। নর্থবেঙ্গল ফাউন্ডেশন আয়োজিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধা, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, আঞ্চলিক সংগঠনের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিকসহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাঙালীরা উপস্থিত ছিলেন জ্যামাইকার তাজমহল পার্টি হলে। রাত ১২:০১ মিনিটে যথাযোগ্য মর্যাদায় সারিবদ্ধভাবে অস্থায়ী শহীদ মিনারে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে পুষ্পমাল্য অর্পন করা হয়। সংগঠনসমূহ হচ্ছেঃ জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশননিউইয়র্ক, নর্থবেঙ্গল ফাউন্ডেশন ইন্ক, বৃহত্তর রাজশাহী জেলা সমিতি ইন্ক, দিনাজপুর জেলা সমিতি ইউএসএ ইন্ক, রংপুর জেলা এসোসিয়েশন ইন্ক, রাজশাহী জেলা সমিতি ইন্ক, ঠাঁকুরগাও ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন ইন্ক, উল্লাপাড়া সোসাইটি অব ইউএসএ ইন্ক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ এসোসিয়েশন ইন্ক,নওগাঁ ডিস্ট্রিক্ট এসোসিয়েশন ইউএসএ, লালমনিরহাট জেলা সমিতি, গোবিন্দগঞ্জ ফাউন্ডেশন ইন্ক, ঠাঁকুরগাও উপজেলা সদর, নিরাপদ সড়ক চাই ইউএসএ, টাঙ্গাইল সোসাইটি ইউএসএ ইন্ক, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই এসোসিয়েশন ইউএসএ ইন্ক, প্রবাসী টাঙ্গাইল ইউএসএ, আমেরিকান ইয়ূথ ফোরাম ইউএসএ, ব্রাহ্মণবাড়ীয়া কমিউনিটি অব নর্থ আমেরিকা, ব্রেভসোলস্ ইন্ক।

ফুল দিয়ে ভাষা শহীদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করেআমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রæয়ারী, আমি কি ভুলিতে পারি গানটি বাজানো হয়। মহান একুশের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী সকল সংগঠনকে সহযোগিতার জন্য সংগঠনের সভাপতি ডাঃ আব্দুল লতিফ সবাইকে অশেষ ধন্যবাদ জানিয়ে সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here