ইডেন কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশনের বার্ষিক সম্মিলনী সম্পন্ন

0
816

 

প্রবাস রিপোর্ট: যুক্তরাষ্ট্রস্থ ইডেন কলেজ এলামনাই এসোসিয়েশনের বার্ষিক প্রীতিভোজ, ঈদ পুর্নমিলনী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান মহাসমারোহে সম্পন্ন হয়েছে। গত ২৯ অক্টোবর জ্যামাইকার তাজমহল পার্টি হলে এক মনোজ্ঞ বিকেলে ইডেন কলেজের প্রাক্তন শিক্ষক, ছাত্রী ও আমন্ত্রিত অতিথিদের সমাগমে এক মিলনমেলায় পরিণত হয়। দুর দুরান্ত থেকে অনেকে ছুটে আসে ইডেনের প্রিয় সহপাঠিদের সাক্ষাতের আশায়। তারা সফল ও হয়। সকলের উপস্থিতিতে এ অনুষ্ঠানটি আনন্দ-উৎসবে মুখর হয়ে ওঠে।

 অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কনসাল জেনারেল শামিম আহসান। বিশেষ অতিথি ছিলেন, ইডেন মহিলা কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ আক্তার বানু।

সাংস্কৃতিক সম্পাদক লুবনা কাইজারের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানটি ছিল মুগ্ধকর ,তাকে সহযোগিতা করে শিরিন ইসলাম এবং মুন্নি কোহেলি।

অনুষ্ঠান দুটি পর্বে বিভক্ত ছিল। প্রথম পর্বে স্বাগত বক্তব্য দেন, অনুষ্ঠানের আহবায়ক কাওসার পারভিন। প্রেসিডন্ট লাইলি মোশারফ সকল এলামনাইদের একাত্ম হয়ে ঈদ পুনর্মিলনী ,বার্ষিক  প্রীতি ভোজ ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সফল করার জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানান।

সাধারন সম্পাদক নাসরিন চৌধুরী ইডেন এলামনাই এসোসিয়েশনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে আলোকপাত করেন। অনুষ্ঠানটি শুরু হয় প্রাক্তন ছাত্রীদের সমবেত পরিবেশনায় বাংলাদেশ ও আমেরিকার জাতীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে।

বাংলাদেশের মেধাবী দরিদ্র ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদানের কথা বলেন প্রেসিডেন্ট লাইলি মোশাররফ। ইতিমধ্যেই দুজন দরিদ্র ছাত্রীকে বৃত্তি দেয়া শুরু হয়েছে। ভবিষ্যতে এর পরিধি আরো বাড়ানো হবে।

দ্বিতীয় পর্বে ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। ইডেন কলেজের ছাত্রীদের মধ্যে গান গেয়ে শোনান। রবীন্দ্র সংগীত পরিবেশন করেন মনিরা আকনজি,আধুনিক গান রওশন হাসান,মা ও মেয়ে সুতপা মন্ডল ও গুনজরি পরিবেশন করে চতুরঙ্গ উচ্চাংগ সংগীত। মেলিসা হাসান নৃত্য পরিবেশন করে।

মুনিয়া মাহমুদ রচিত ইডেনের গান কবিতা দলীয় ভাবে পাঠ করে রওশন, নিপা , মুন্নি ও রেশমা। সামিনা আহমেদ রুপা পরিবেশন করে দুটি নৃত্য যা প্রশংসিত হয়।

শিরিন বকুল বাংলাদেশের খ্যাতি মান নাট্য অভিনেত্রী রবীন্দ্র নাথ ঠাকুরের ‘রক্ত করবি নাটকের অংশ বিশেষ অভিনয় করে। কৌতুক বলেন মুনিয়া মাহমুদ। পুথি পাঠ করেন আখতারা খান রুবি।

অতিথি শিল্পীদের মধ্যে ছিলেন নিউইয়র্কের জনপ্রিয় শিল্পী তাজুল ইমাম,তাহমিনা শহীদ , সেলিম ইব্রাহিম,রুবিনা শিল্পী ও বাবলি হক। গিটার বাজিয়ে শোনান বাংলাদের রেডিও টেলিভিশনের শিল্পী রেহানা সুলতানা। বিপার নৃত্য শিল্পী জেরিন মাইশার নৃত্য ছিল অসাধারন পরিবেশনা। শহীদ কাদরীর কবিতা আবৃতি করেন আবৃত্তিকার গোপন সাহা। নাসরিন চৌধুরীর কবিতা আবৃত্তি করেন টাইম টেলিভিশনের সংবাদ পাঠিকা দিমা নেফারতিতি।

ইডেন এলামনাই এসোসিয়েশনের উপদেষ্টা প্রাক্তন ছাত্রী কম্যুনিটি একটিভিষ্ট নার্গিস আহমেদ তাঁর উপস্থিতিতে কলেজের ছাত্রীদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেন।

অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট আবুল কালাম আজাদ, নটরডেম কলেজের প্রাক্তন অধ্যাপিকা হোসনে আরা,জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রধান প্রাক্তন অধ্যাপিকা সেলিনা আক্তার,শিক্ষাবিদ নাঈমা খান,কমিউনিটি একটিভিষ্ট ও লেখক লিজি রহমান, ডা.সারওয়ার হাসান চৌধুরী, ডা.বর্নালী হাসান, ফার্মালিস্ট মুস্তাক আহমেদ, মাহফুজুর রহমান,শহীদ উদ্দীন প্রমুখ।

ঈদ পুনমিলনী উপলক্ষে একটি স্মরনিকা প্রকাশিত হয় মুনিয়া মাহমুদের সম্পাদনায়।

প্রেসিডেন্ট লাইলি মোশারফ, সাধারন সম্পাদক নাসরিন চৌধুরী আগামীতে আরো বড় অনুষ্ঠান করার ইচ্ছা ব্যক্ত করে মিলন মেলা সফল করার জন্য এলামনাইদের ধন্যবাদ জানান।

অনুষ্ঠানের আহবায়ক কাওসার পারভিন এলামনাইদের ও আগত অতিথিদের ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

কলেজের প্রাক্তন অধ্যাপক, নির্বাহী কমিটির প্রেসিডেন্ট লাইলী মোশাররফের নেতৃত্বে কলেজের প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীরা গত কয়েকমাস ধরে এর প্রস্তুতিতে স্বত:স্ফুর্ত অংশগ্রহণ করছিলেন। প্রাক্তন ছাত্রীদের রিইউনিয়ন সংক্রান্ত বিভিন্ন কাজে নিজেদের দায়িত্বশীলতার মাধ্যমে কলেজের প্রতি তাঁদের অনুরাগের পরিচয় দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here