অবশেষে প্রবাসী সালমার ডিপোর্টেশন স্থগিত

0
123

প্রবাস রিপোর্ট: কানেকটিকাটের নিউ হ্যাভেনের বাসিন্দা প্রবাসী বাংলাদেশি সালমা রেজা সিকান্দারের যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশে ডিপোর্ট করার চূড়ান্ত আদেশ স্থগিত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে সালমাকে জেএফকে বিমানবন্দর দিয়ে দেশে ফেরত যাবার বিমান টিকেটসহ দিনক্ষণ নির্ধারণ করে দিয়েছিল ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট (আইসিই)। কিন্তু মানবদিখার সংগঠনের বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ আর স্থানীয় রাজনীতিবিদদের প্রচেষ্টার ফলে বেধে দেওয়া সময়ের ২৯ ঘণ্টা আগে সালমার বহিস্কারাদেশ বাতিল করে আইসিই।

দীর্ঘ ১৯ বছর ধরে যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন বাংলাদেশি সালমা রেজা সিকান্দার। ১৯৯৯ সালে ভ্রমণ ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে এসেছিলেন সালমা। ভিসার মেয়াদ শেষ হবার পর আর দেশে ফিরে যাননি। যুক্তরাষ্ট্রে ছেলে জন্ম নেবার পর তিনি তার ছেলের দেখাশোনা করার জন্য এদেশের থাকার জন্য একটি আবেদন করেন। কিন্তু তার আবেদন বাতিল করে তাকে ডিপোর্টেশনের আদেশ দেওয়া হয়। এ নিয়ে বেশ কিছু দিন ধরে ব্যপক প্রতিবাদ হয়েছে। সালমার ১৭ বছর বয়সী ছেলে সামির মাহমুদ স্থানীয় কুইনিপিয়াক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছেন। আগামী ২৭ আগস্ট সোমবার থেকে তার ক্লাশ শুরু হবে।
সালমার বাংলাদেশে ফেরত যাবার নির্দেশ বাতিলের দাবিতে কানেকটিকাটের প্রবাসী বাংলাদেশিসহ হিউম্যান রাইটস প্রতিনিধিরা ইউএস কোর্টের সামনে দু’দফায় বিক্ষোভ ও সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। গত মঙ্গলবার বিকেলে ৪টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত সালমা কানেকটিকাটের হার্টফোর্ড শহরে ইউএস কোর্ট হাউসের সামনে ৪১ ঘণ্টার অনশন ধর্মঘট শুরু করেন সালমার পরিবার ও হিউম্যান রাইটসের প্রতিনিধিরা।
বুধবার দুপুর ২টার দিকে ডিপার্টমেন্ট অব জাস্টিস বিভাগের বোর্ড অব ইমিগ্রেশন আপিল (বি আইএ) সালমার যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান সংক্রান্ত আবেদন নাকচ করে দেন। এ খবর শুনে সালমার পরিবার, আন্দোলনকারী ও সংশ্লিষ্ট রাজনীতিবিদরা বিচলিত হয়ে পড়েন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে বিকেল চারটার দিকে সালমার বহিস্কারাদেশ বাতিল করে আরও এক বছর যুক্তরাষ্ট্রে থাকার অনুমতি দেন ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট (আইসিই)। আইসিই’র এই আদেশের খবর পেয়ে সবার মনে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফিরে আসে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here