খালেদা জিয়ার কারাদণ্ড :বিশ্বব্যাপী প্রতিক্রিয়া

0
158

বেগম জিয়াকে নির্বাচনের বাইরে রাখার কৌশল
মোর্শেদ হক: বৃহস্পতিবার বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রভাবশালী সব সংবাদমাধ্যমে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় নিয়ে ফলাও করে খবর প্রচার করা হয়েছে। তবে আন্তর্জাতিক প্রায় সকল পর্যবেক্ষকের মতামত হচ্ছে, আগামী নির্বাচনে বেগম জিয়াকে নির্বাচনের বাইরে রাখতেই এটি সরকারের একটি কৌশল।
ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলেছে, দুর্নীতির মামলায় বাংলাদেশের বিরোধীদলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদÐ দিয়েছেন আদালত। ঢাকার আদালত খালেদাকে ওই সাজা দিয়েছেন। রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে ঢাকার রাস্তায় খালেদার হাজার হাজার সমর্থককে ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার গ্যাস নিপে করেছে।
জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের আন্তর্জাতিক সহায়তা আত্মসাতের অভিযোগ উঠলেও ৭২ বছর বয়সী খালেদা তা অস্বীকার করেছেন। বিবিসি বলছে, দেশটির প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক প্রধান প্রতিদ্ব›দ্বী খালেদার বিরুদ্ধে আরো এক ডজনের বেশি মামলা ঝুলে রয়েছে।
তবে দুর্নীতির একই মামলায় খালেদা জিয়ার ছেলে তারেক রহমানকে ১০ বছরের দÐ দিয়েছেন আদালত। সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও দেশটির প্রধান বিরোধী নেত্রী খালেদা জিয়ার রায় ঘিরে বাংলাদেশে সর্বোচ্চ সতর্কতা গ্রহণ করা হয়েছে। বিবিসি বলেছে, আগামী ডিসেম্বরে দেশটির জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠানের কথা থাকলেও কারাদÐ হওয়ায় এ নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না তিনি।
ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি বলেছে, বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছে বিরোধীদলীয় কর্মী-সমর্থকেরা। যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন পোস্ট লিখেছে, বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে দুর্নীতির দায়ে পাঁচ বছরের কারাদÐ দেয়া হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার এবিসি নিউজ লিখেছে, বাংলাদেশের আদালত দেশটির সাবেক নেতা খালেদা জিয়াকে কারাগারে পাঠিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা এপি তাদের ব্রেকিং নিউজে বলছে, দুর্নীতির দায়ে বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদÐ দিয়েছেন দেশটির একটি আদালত।
আলজাজিরা লিখেছে, দুর্নীতির মামলা বাংলাদেশের দুইবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদÐ দিয়েছেন একটি আদালত। ভারতীয় সরকারি বার্তা সংস্থা পিটিআই বলেছে, বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের বিরোধীদলীয় নেত্রী ও দুইবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে দুর্নীতির মামলায় পাঁচ বছরের কারাদÐ দিয়েছেন দেশটির আদালত। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের অর্থ আত্মসাতের মামলায় তিনি এ দÐ পেয়েছেন। একই মামলায় খালেদার ছেলে তারেক রহমান ও আরো অন্য চার আসামিকে ১০ বছরের দÐ দেয়া হয়েছে।
এ ছাড়াও ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া, এনডিটিভি, নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, পাকিস্তানি দৈনিক ডন, ডেইলি পাকিস্তান, মার্কিন সংবাদ সংস্থা সিএনএন, দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস, ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ানসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সংবাদমাধ্যমে খালেদার দÐের খবর গুরুত্বসহকারে প্রকাশ করা হয়েছে।
পাকিস্তানের জিও টিভির অনলাইনেও একই শিরোনাম করা হয়েছে। বলা হয়েছে, বাংলাদেশের দুইবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট ফান্ডের ২১ মিলিয়ন টাকা আত্মসাতের অভিযোগ দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। প্রভাবশালী দৈনিক দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন বলছে, দুর্নীতির মামলায় অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিরোধী নেত্রী খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদÐ দিয়েছেন ঢাকার বিশেষ একটি আদালত।
যুক্তরাষ্ট্র সচেতন: যুক্তরাষ্ট্র
সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দেয়া রায়ের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র সচেতন রয়েছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। খালেদা জিয়ার রায়ের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এক বিবৃতিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মূখপাত্র এ কথা জানান।
বাংলাদেশকে স্বচ্ছ বিচারের নিশ্চয়তা দিতে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশকে উৎসাহ দিচ্ছে বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়। বিরোধী দলের কর্মীদের আটকের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ কওর যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের প্রতিটি নাগরিকের সুষ্ঠু বিচারের নিশ্চিত করার প্রতি আহ্বান জানানো হয় বিবৃতিতে।
বিবৃতিতে আরো উল্লেখ করা হয়, বাংলাদেশে জনগণ তাদের ব্যাক্তিস্বাধীনতার সম্মানের অংশ হিসেবে যাতে করে শান্তিপূর্ন সমাবেশের অনুমতি পায় সেদিকে সরকারকে লক্ষ্য রাখতে হবে এবং তাদের মতামত স্বাধীনভাবে প্রকাশ যেন করতে পারে সে পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।
রায় পর্যবেক্ষণ করছে জাতিসঙ্ঘ
এদিকে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রায় এবং রায়-পরবর্তী ঘটনপ্রবাহ পর্যবেক্ষণ করছে জাতিসঙ্ঘ । বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতিসঙ্ঘ সদর দফতরে দেয়া নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব কথা জানান জাতিসঙ্ঘ মহাসচিবের ডেপুটি মুখপাত্র ফারহান হক।
নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ের শুরুতেই প্রশ্নোত্তর পর্বে বাংলাদেশের সর্বশেষ পরিস্থিতি তুলে ধরে বাংলাদেশী সাংবাদিক ইমরান আনসারীন এক প্রশ্নের উত্তরে ফারহান হক বলেন, বিষয়টি বিষয়টি মাত্রই আমাদের দৃষ্টি গোচর হয়েছে। খালেদা জিয়ার আটকের বিষয়টি উদ্বেগজনক। বিষয়টির পেছনে কী আছে তা আমরা পর্যবেক্ষণ করে দেখছি। এবিষয়ে জাতিসঙ্ঘ আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিক্রিয়া জানাবে। তিনি আরো বলেন, আমরা সহিংসতার জন্য উদ্বেগ প্রকাশ করছি। উভয়পক্ষকে শান্ত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।
অপর এক প্রশ্নের উত্তরে ফরহান হক বলেন, এ রায়ের প্রভাব কী হবে তা আমরা বিচার বিশ্লেষণ করে দেখছি। তবে বাংলাদেশে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের পক্ষে জাতিসঙ্ঘের অবস্থান।
সাংবাদিক মাথিউ জানতে চান , বাংলাদেশে আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে প্রায়ই অভিযোগ শোনা যায় বিক্ষোভ দমাতে তারা তাজা বুলেট ব্যবহার করে। আবার এসব সদস্যদের শান্তিরক্ষী মিশনে মোতায়েন করা হয়। জবাবে ফরহান বলেন, শান্তিরক্ষী মিশনে মোতায়েনের ক্ষেত্রে জাতিসঙ্ঘ তার মানদÐ বজায় রেখে চলে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here