লাইবর-এর নির্বাচনে ইতিহাস সৃষ্টি : ভিপি পদে প্রথম এশিয়ান রব চৌধুরী

0
2094

 

প্রবাস রিপোর্ট: যুক্তরাষ্ট্রে রিয়েলটর্সদের অন্যতম বৃহত্তম প্রতিষ্ঠান ‘লং আইল্যান্ড বোর্ড অব রিয়েলটর্স’ (লাইবর)-এর নির্বাচনে প্রথম এশিয়ান হিসাবে সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন হয়েছেন বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত রব চৌধুরী। ২৬,০০০ রিয়েলটর্সদের এই বিশাল প্রতিষ্ঠানে দীর্ঘদিন ধরে মূল নেতৃত্ব দিয়ে আসছে হোয়াইট আমেরিকান রিয়েলটর্সরা। গত ২৪ অক্টোবর মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত এই প্রতিষ্ঠানের তীব্র প্রতিযোগিতাপূর্ণ এই নির্বাচনে রিয়েলটর্সদের জগতে সফল ব্যবসায়ী বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত রব চৌধুরী ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে লড়ে বিজয় ছিনিয়ে এনেছেন। তার উপর কুইন্স ও ব্রুকলীনের দায়িত্ব ন্যস্ত থাকবে।

 

মঙ্গলবার জ্যাকসন হাইটসসহ নিউইয়র্কের ৫টি সেন্টারে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত নির্বাচন হয়েছে। লাইবর’র সদস্য বাংলাদেশী রিয়েলটরদের স্বার্থ রক্ষার্থে সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে রব চৌধুরীকে বিভিন্ন ভাষা-ভাষীদের সাথে বাংলাদেশী রিয়েলটরা ভোট দিয়েছেন।
রব চৌধুরী গত ২৪ বছর ধরে রিয়েল এস্টেট ব্যবসার সাথে জড়িত,বর্তমানে তিনি লাইসেন্সধারী এসোসিয়েট ব্রোকার,মাল্টি মাস্টার ওয়ার্ল্ড ও সেনচুরিয়ান এওয়ার্ড বিজয়ী একজন প্রতিষ্ঠিত রিয়েলটর হিসেবে জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছেন। তিনি সাফল্যের সাথে গত ৪ বছর যাবৎ নিউইয়র্ক স্টেট এসোসিয়েশন অব রিয়েলটর্স বা নাইসার এবং লং আইল্যান্ড বোর্ড অব রিয়েলটর বা লাইবর’র ডিরেক্টর পদে বিজয়ী হয়ে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।
নিউইয়র্ক স্টেট এসোসিয়েশন অব রিয়েলটর্স (নাইসার) এবং লং আইল্যান্ড বোর্ড অব রিয়েলটর (লাইবর)-এর ডিরেক্টর হিসাবে ইতিমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের রিয়েল এস্টেট মার্কেট নিয়ন্ত্রণে একজন নীতি নীর্ধারক হিসাবে কাজ করছেন। তিনি ‘রিয়েলটর্স পলিটিক্যাল এ্যাকশন কমিটি’র সাথে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত থেকেও কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।
ওয়াশিংটনে যুক্তরাষ্ট্রের হাউজিং মার্কেট নিয়ন্ত্রনে ফেডারেল কর্মকর্তা, কংগ্রেসম্যান ও সিনেটরদের সাথে হাউজিং মার্কেট চাঙ্গা করার ক্ষেত্রে বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে নিয়মিত লবিষ্ট হিসাবে তিনি নিজেকে সক্রিয় রেখে সংগঠনের সদস্যদের আস্থা অর্জণ করেছেন।
বুধবার সন্ধ্যায় সাপ্তাহিক প্রবাস কার্যালয়ে উপস্থিত হয়েছিলেন রব চৌধুরী। এসময় তার কথায় উঠে আসে প্রতিষ্ঠানের প্রতি মমত্ববোধ,আগামী দিনের পরিকল্পনা,রিয়েলর্টসদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। তিনি বলেন, আমি একজন বাংলাদেশি আমেরিকান হয়ে গর্ববোধ করি। বাংলাদেশী রিয়েলটরদের প্রতি আমি আন্তরিক কৃতজ্ঞ। মঙ্গলবারের নির্বাচনে লাইবর’র সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বিজয়ী হওয়াকে আমি শুধু আমার বিজয় হিসেবে দেখছি না,এটা আগামী দিনে বাংলাদেশীসহ এশিয়ান রিয়েলটরদের সামনে এগিয়ে যেতে পথ দেখাবে।
তিনি বলেন,আমার নির্বাচনের মাধ্যমে মূলত: লাইবর-এ নেতৃত্ব ডাইভার্সিফাইড হয়েছে। লাইবর’র সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং রিয়েলটর্র্স ন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশনের ডিরেক্টর হিসাবে আমি আমেরিকার বাড়ির বাজারের স্বার্থ রক্ষার্থে বরাবরের মতো আমার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাব। এর সাথে যেমন বাড়ির মালিকদের স্বার্থ জড়িত সেই সাথে কনজ্যুমারদের স্বার্থও জড়িত।
ভবিষ্যত কর্ম পরিকল্পনা সম্পর্কে তিনি বলেন, বাড়ির বাজার চাঙ্গা রাখার জন্য কম মূল্যের প্রিমিয়ামে ন্যাশনাল ফ্লাড ইন্স্যুরেন্স সংস্কার করা, মর্গেজ দায় মোচনে আইন সংশোধন, মর্গেজ ইন্টারেস্ট ডিডাকশনের বর্তমান পদ্ধতি ও আইন বলবত রাখা, কো-অপ হাউজিংয়ে বৈষম্য রোধে স্টেট আইন পাশ,স্টেট ওয়াইড এমএলএস সিস্টেমে সকল রিয়েলটরদের একসেস নিশ্চিত করাতে আমি সচেষ্ট থাকবো।
এই বিষয়গুলো নিশ্চিত করতে আমি অতীতে যেমন আমি ওয়াশিংটনে লবিং করেছি , নতুন পদে অধিষ্ঠিত হওয়ায় আগামীতেও আমার দায়িত্ব আরো বাড়বে বলে মনে করি। আমি সে দায়িত্ব পালনে আপ্রাণ কাজ করে যাব।
তিনি বলে, আমেরিকার অর্থনীতির মেরুদন্ড হচ্ছে হাউজিং মার্কেট। এ দেশের অর্থনীতির চালিকা শক্তিই এই বাজার। এই মার্কেটে প্রায় ১৩ লাখ রিয়েলটর্স কাজ করছে। আমরা ২০০৭ সালে দেখেছি, হাউজিং মার্কেট ক্রাশ হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতিতে কি ভয়াবহ মন্দাভাব সৃষ্টি হয়েছিল।
তিনি আশা প্রকাশ করেন, ২০০৭ সালের মন্দার কারণে দীর্ঘদিন ধরে বাড়ির বাজারে কিছুটা নিস্তেজ থাকার পর বর্তমানে যে চাঙ্গাভাব শুরু হয়েছে সেটি আগামীতেও অব্যাহত থাকবে।
উল্লেখ্য, রিয়েলটর জগতে সফল ব্যবসায়ী রব চৌধুরী এই ব্যবসায় অত্যন্ত সততা ও সুনামের সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। তার মাধ্যমে শত শত বাংলাদেশী ইমিগ্রান্ট নিউইয়র্ক ও লং আইল্যান্ডে বাড়ির মালিক হয়েছেন অথবা প্রতিযোগিতামূলক মূল্যে বাড়ি বিক্রি করতে সক্ষম হয়েছে।
রব চৌধুরী বলেন, রিয়েলটর হিসাবে সফলতা লাভে সবচেয়ে বড় প্রয়োজন আন্তরিকতা ও সততা। সেই সাথে হতে হবে পরিশ্রমী ও দক্ষ। সফলতার লক্ষ্যে এর ব্যতিক্রম নেই।
উল্লেখ্য,রব চৌধুরীর অপর তিন ভাইও নিউইয়র্ক কমিউনিটিতে ব্যাপকভাবে পরিচিত। এদের মাঝে আছেন বড় ভাই মুক্তিযোদ্ধা ও রিয়েলটর আব্দুল মুকিত চৌধুরী,ছোট ভাই এটর্নি মঈন চৌধুরী ও বাংলাদেশ সোসাইটির ট্রাষ্টি বোর্ড সদস্য ওয়াসি চৌধুরী (ই.এ)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here